Assignment

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার নিয়ম ২০২১

বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি তথ্যমূলক জন্ম নিবন্ধন। একটু শিশুর জন্ম নেওয়ার পর থেকে যে সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে থাকে তার মধ্যে অন্যতম স্বাভাবিক অধিকার হলো জন্ম নিবন্ধনের অধিকার। একজন নাগরিক ও বিভিন্ন সুবিধা পাওয়ার জন্য এই জন্ম সনদের ব্যবহার অপরিহার্য। তবে জন্ম সনদ করার সময় সাধারণত আমাদের বিভিন্ন ধরনের ভুল হয়ে থাকে। এই ভুল সংশোধনের জন্য আমরা বেশ কিছু পদ্ধতি অবলম্বন করব এবং যে সকল প্রয়োজনীয় খুব বেশি প্রয়োজন তা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করব।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন ২০২১

জন্ম নিবন্ধন নেই এমন মানুষের সংখ্যা দেখা প্রায় অসম্ভব। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় যে আমরা জন্ম নিবন্ধন সাথে এক ব্যক্তির সকল তথ্য মিল পাওয়া যায় না যেমন তার নামের যে বানান রয়েছে অথবা তার সার্টিফিকেটের সাথে যে জন্মতারিখ রয়েছে তার সঠিক মিল পাওয়া যায় না। জাতীয় পরিচয় পত্র পাওয়ার পূর্বে আমাদের প্রতিটি ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন সনদ প্রতি গুরুত্বপূর্ণ যার কারণে আমাদের জন্ম নিবন্ধন এর সকল তথ্য নির্ভুল হওয়া প্রয়োজন। চলুন জেনে নেই কিভাবে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করবেন তার বিস্তারিত সকল তথ্য।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন ২০২১

বর্তমান সময়ে সকল কিছুর প্রায় এখন অনলাইনের মাধ্যমে সম্পাদিত হয়েছিল চলেছে। তাই যে সকল ব্যক্তির জন্ম নিবন্ধনের ভুল রয়েছে তাদের জন্য সুখবর হলো গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার বর্তমানে সরাসরি অনলাইনে আপনার জন্ম নিবন্ধন এর বিভিন্ন সংশোধনের জন্য একটি অনলাইন পোর্টাল চালু করেছে। এ অনলাইন পোর্টাল ব্যবহার করে আপনি খুব সহজেই 10 থেকে 15 দিনের মধ্যেই আপনি সঠিক জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি সংশোধন করে তা নতুন এক কপি হাতে পেয়ে যাবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে বেশ কিছু কাগজ পাতি হাতের কাছে রাখা লাগবে যা আপনার প্রামাণিক দলিল হিসেবে উপস্থাপন করতে হবে।
  • ১. আবেদনকারীর জন্ম নিবন্ধন (যা অনলাইনে নিবন্ধিত থাকতে হবে);
  • ২. পিতা ও মাতার জন্ম নিবন্ধন (যা অনলাইনে নিবন্ধিত থাকতে হবে);
  • ৩. শিক্ষাগত যোগ্যতা সনদ/টিকা সনদ অথবা তথ্য প্রমাণের জন্য অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কোনো সনদ;

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন যাচাই

কিছু গুরুত্বপূর্ণ নোট: আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে হলে, নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করুন:

১. যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর থাকে, তাহলে তাদের জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করে তাদের নাম সংশোধন করে আসতে হবে।

এরপর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে থাকেন, তবে তাদের নাম সংশোধন করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনর্মুদ্রণ করলে সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে।

আর যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন করার সময় আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না দিয়ে থাকেন, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বরের সাথে পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করতে হবে।

পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ম্যাপ করার পর আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ পুনর্মুদ্রণ করলে, সেখানে পিতা/মাতার সংশোধিত নাম দেখা যাবে।

২. যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পূর্বে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতা মৃত হলেও তাদের মৃত্যুর কোন প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে না।

৩. যদি আপনার পিতা/মাতার জন্ম নিবন্ধন নম্বর না থাকে এবং আপনার পিতা/মাতা মৃত হয় এবং আপনার জন্ম তারিখ 01/01/2001 এর পরে হয়, তবে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য সংশোধন আবেদন করার সময় আপনার পিতা/মাতার নাম সংশোধন করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনার পিতা/মাতার মৃত্যুর প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার অনলাইন আবেদনের পদ্ধতি:

আপনার জন্ম নিবন্ধনের অনলাইন আবেদন করার জন্য নিচের দেখানো ধাপগুলো অনুসরণ করে তথ্য সংশোধনের আবেদন সাবমিট করুন।

Birth-Certificate-Correctio

ধাপ-১: জন্ম নিবন্ধন সংশোধন পোর্টালে লগইন ও নিবন্ধিত ব্যক্তির তথ্য অনুসন্ধান

জন্ম তথ্য সংশোধনের জন্য আবেদন অনলাইন আবেদন করার জন্য এই লিংকে প্রবেশ করুন http://bdris.gov.bd/br/correction অথবা এখানে ক্লিক করুন;

আপনার সামনে নিচের ছবিরমত জন্ম নিবন্ধন সংশোধন অনলাইন আবেদন ফরম পোর্টাল চালু হবে। প্রদত্ত নিদের্শনা অনুসরণ করে পরর্বতী ধাপে প্রবেশ করুন।

http://bdris.gov.bd/br/correction পোর্টালের জন্ম তথ্য সংশোধন ফরমে প্রথমে যার জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করতে চান তার জন্ম নিবন্ধন নম্বর প্রবেশ করুন।

এখানে প্রথমে আপনার অনলাইন নিবন্ধন নম্বর ১৭ ডিজিট প্রবেশ করুন এবং জন্ম তারিখ ড্রপ ডাউন মিনু থেকে নির্বাচন করে অনুসন্ধান বাটনে ক্লিক করুন। তথ্য সঠিক থাকলে নিচে নিবন্ধিত ব্যক্তির তথ্য প্রদর্শন করবে।

final-Step

প্রর্দশিত তথ্যের পাশে থাকা নির্বাচন করুন একশন বাটনে ক্লিক করুন। আপনি কি নিশ্চিত? নাম একটি কনফার্মেন মেসেজ প্রদর্শন করবে। সেখানে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করুন। তারপর আপনাকে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্য: অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য অবশ্যই নিবন্ধিত ব্যক্তির জন্ম সনদটি অনলাইনে থাকতে হবে এবং জন্ম সনদ নম্বর ১৭ সংখ্যার হতে হবে। অন্যথায় জন্মসনদ অনলাইন করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

আরও পড়ুন: হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করার পদ্ধতি

ধাপ-২: নিবন্ধন কার্যালয়ের ঠিকানা নির্বাচন

এই ধাপে আপনার যে ইউনিয়ন বা পৌরসভার অধীনে জন্ম নিবন্ধনটি করা হয়েছে সে ঠিকানা নির্বাচন করতে হবে। এরজন্য নিচের ছবিতে দেখানে নির্দেশনা অনুসরণ করুন;
ধাপ-২

Step-3

এখানে প্রথমে দেশ ড্রপ ডাউন মেনু থেকে যে দেশ থেকে অনলাইন জন্ম নিবন্ধন করা হয়েছে সে দেশ নির্বাচন করুন; বাংলাদেশ নির্বাচন করলে বিভাগ অপশন থেকে বিভাগ ও ছবিতে প্রর্দশিত আবশ্যিক তথ্যগুলো নির্বাচন করুন।

সকল তথ্য নির্বাচন হয়ে গেলে পরর্বতী বাটনে ক্লিক করে পরবর্তী ধাপে প্রবেশ করুন। এই ধাপে আপনার জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের মূল কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে।
ধাপ-৩: সংশোধনের আবেদন ফরম পূরণ;

আপনার জন্ম নিবন্ধনে তথ্য সংশোধনের জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। এখানে আপনি তথ্য সংশোধনের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য এন্ট্রি করবেন। নিচে ছবিরমত ফরমটি আগে ভালোভাবে পড়ুন এবং প্রয়োজনীয় তথ্য দিন।
ধাপ-৩ : চাহিত তথ্য এন্ট্রি

১. বিষয় নির্বাচন: প্রথমে বিষয়ের ড্রপ ডাউন মিনু থেকে সংশোধনের বিষয় নির্বাচন করুন। আপনি চাইলে যেসকল বিষয় সংশোধনের আবেদন করতে পারবেন তাহল-

ক. নাম (বাংলায় ও ইংরেজিতে), খ. পিতা ও মাতার নাম (বাংলায় ও ইংরেজিতে), গ. জন্ম তারিখ, ঘ. জাতীয়তা, ঙ. লিঙ্গ, ও চ. জাতীয় পরিচয়পত্র;

আপনার যে তথ্যটি সংশোধন করার প্রয়োজন তা নির্বাচন করার পর চাহিত সংশোধিত তথ্য বক্সটি সক্রিয় হবে। এখানে আপনার সঠিক তথ্যটি প্রদান করে সংশোধনের কারণ হিসেবে ভুল লিপিবদ্ধ করা হয়েছে নির্বাচন করুন।

একাধিক তথ্য সংশোধনের প্রয়োজন হলে আরও তথ্য সংযোজন করুন বাটনে ক্লিক করে সংশোধনের প্রয়োজনীয় সকল তথ্য দিন।

২. ঠিকানা সংক্রান্ত তথ্য এন্ট্রি: সংশোধনের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্যাদি এন্ট্রি করার পর আপনার জন্ম স্থানের ঠিকানা, স্থায়ী ঠিকানা ও বর্তমান ঠিকানার তথ্য দিন।

দেশ, বিভাগ, ডাকঘর (বাংলায় ও ইংরেজিতে), গ্রাম / পাড়া / মহল্লা (বাংলায় ও ইংরেজিতে), বাসা ও সড়ক ( নাম, নম্বর ) সঠিকভাবে এন্ট্রি করুন।

৩. আবেদনকারীর তথ্য: নিবন্ধিত ব্যক্তির তথ্যাদি সংশোধনের জন্য যিনি আবেদন করছে তার তথ্য প্রদান করুন।

আবেদনাধীন ব্যক্তির সহিত সম্পর্ক নির্বাচন করুন এবং আবেদনকারীর নাম, আবেদনকারীর ঠিকানা, ফোন নম্বর,
ইমেইল প্রদান করুন।

সংশোধনের আবেদনকারী পিতা,মাতা ব্যতিরেকে অন্য কেউ হলে তার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর প্রদান করুন।

আবেদনকারীর তথ্য ও আপলোড করার পদ্ধতি

৪. আবেদনরে স্বপক্ষ্যে প্রয়োজনীয় তথ্যাদি আপলোড: অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের জন্য আবেদনের স্বপক্ষ্যে প্রয়োজনীয় তথ্য আপলোড করার জন্য সবুজ চিহ্নিত সংযোজন বাটনে ক্লিক করুন;

Birth-Certificate-Correctio-1

আপনার প্রত্যাশিত ফাইলটি নির্বাচন করে অপেন বাটনে ক্লিক করুন। আপনার নির্বাচিত ফাইলটি প্রিভিউ দেখাবে এবং এর পাশে থাকা File Type ড্রপডাউন মিনু থেকে আপনার সংযুক্তির ধরনটি নির্বাচন করে আপলোড করার জন্য Start বাটনে ক্লিক করুন;

৫. আবেদন ফি পেমেন্ট: জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার জন্য আপনাকে প্রয়োজনীয় ফি চালান অথবা অনলাইন ফি পরিশোধ পদ্ধতি ব্যবহার করে পরিশোধ করতে হবে।

step-4

আপনি যদি অনলাইন পেমেন্ট পদ্ধতি ব্যবহার করতে চান তাহলে ফি আদায় বাটনে ক্লিক করুন এবং চালান এর মাধ্যমে ফি পরিশোধ করে থাকলে চালান এর মাধ্যমে নির্বাচন করুন।

চালান এর মাধ্যমে ফি পরিশোধ করে থাকলে- চালান নং, চালান জমা দেয়ার তারিখ, চালান পরিশোধের মাধ্যম, ব্যাংক, জেলা ও ব্যাংক ব্রাঞ্চ সঠিকভাবে এন্ট্রি করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করুন।

চাহিত তথ্যাদি আবেদনের প্রযোজ্যতা থাকলে আপনার অনলাইন আবেদনটি সাবমিট হবে এবং নিচের ছবিরমত একটি সফল মেসেজ Success, আবেদনপত্রটি সফল ভাবে সাবমিট করা হয়েছে আসবে।

৬. পরবর্তী কার্যক্রম: আবেদন দাখিল হওয়ার পর প্রিন্ট বাটনে ক্লিক করে, আবেদনপত্রটি প্রিন্ট করে প্রয়োজনীয় কাহজপত্রসহ নির্ধারিত তারিখের মধ্যে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধকের নিকট (ইউনিয়ন বা পৌরসভায়) দাখিল করুন।

সংশ্লিষ্ট কার্যালয় আপনার আবেদনটি যাচাই বাছাই করে পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করবেন। নিবন্ধন সঠিক হওয়ার পর আপনার অনলাইন জন্ম নিবন্ধনটি হাতে পেয়ে যাবেন।

ঘরে বসে বাংলাদেশের যেকোন স্থানের জন্ম নিবন্ধন সংশোধন আবেদন করার জন্য নিচের ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারেন। এই প্রতিষ্ঠান আপনাকে অনলাইনে আবেদন সংক্রান্ত যাবতীয় সহযোগিতা স্বল্পমূল্যে করে দিবে।

Muntasir Srabon

Muntasir Srabon is a student of Masters Of Arts from National University Of Bangladesh under Rajshahi College. During his graduation he has taken different types of courses on Writing Skills. He has a lots of experienced of managing several article publishing websites. Now he is working as a Freelance Writer for different international projects.

Related Articles

Back to top button